বুধবার, ২১ মার্চ, ২০১৮

আইলাইনার ~ অঙ্কিতা ঘোষ

তোমার চোখের নিচের পাতাজুড়ে টানা কালো আইলাইনের রেখার দিব্বি জোয়ানা
তোমাকে ভালবাসি আমি 
সাইকোলজি'র ক্লাসে কি ওরা পুরুষ মনস্তত্ত্ব পড়াত? 
কজন পুরুষ আর কজন মহিলা ছিলেন তোমাদের ডিপার্টমেন্টে? 
জেন্ডার ব্যালেন্স নিয়ে তখন কি ভাবতে তুমি?
নাকি মশগুল থাকতে সদ্য প্রেম 
প্রেমিকের বাচ্চা পেটে নিয়ে ক্লাস 
ক্লাস শেষে তীব্র আইসক্রিমের অভীপ্সা কোন কোনদিন 
বছর কুড়ির আরও কত কি আকাঙ্ক্ষা নিয়ে? 

জোয়ানা, তোমার পনেরো বছরের বিবাহিত পুরুষ আজো ঠকায় তোমায় 
কেননা ঠকিয়ে পার পেয়ে যাওয়া পুরনো রেওয়াজ 
সাত ঘণ্টার সময়ান্তরে থাকা পুরুষ তোমার মিথ্যে বলে 
কেননা মিথ্যে বলা তেমন কোন বৃহৎ অপরাধ নয় 
ফাদার্স ডে কাটাও জোয়ানা তোমার সদ্য পনেরো ছোঁয়া মেয়ে আর তার বাবা কে নিয়ে 
পাঁচতারা হোটেলে গিয়ে ভাল ভাল খাবারের দিকে তাকিয়ে থাকা তোমার মেয়েকে শিখিয়ে দিতে ভুলো না এই বয়েসে ও'ও খাবার 
ওর দিকে লোভী চোখে তাকিয়ে থাকা পুরুষ চোখের বিষয়ে সাবধান করে দিতে হবে তোমারই
তেরেসাকে চুপি চুপি বলে দিও সব্বার থেকে সাবধানে থাকাই ভাল
এমনকি বাবার থেকেও 

তুমি আমায় চেন না জোয়ানা
কিন্তু আমি তোমায় জানি 
বহু খুঁজেপেতে তোমায় পেয়েছি কেননা  
একে অপরকে যত্নে বাঁচিয়ে রাখা আমাদের খুব দরকার 
তেরেসার জন্য অন্তত  
তেরেসা যেদিন ওর বয়ফ্রেন্ডের সমান মাইনের দাবিতে রাস্তায় নামবে 
সেদিন তুমি আমি দুজনেই ওর পতাকা ধরা হাত যাতে ক্লান্তিতে অবশ না হয়ে যায় 
ওর বহু পথ হাঁটা পা জোড়া যাতে অবসন্ন হয়ে থেমে না যায় 
সেদিকে খেয়াল রাখব 

তুমি আর আমি দুজনেই আইলাইনার পড়ি জোয়ানা 
কাজলের গাঢ় রেখায় অনেক সংগ্রাম ক্লান্তি ঢেকে দিয়ে খুশির ভাণ করে ডিস্কোথেকে নাচতে যাই আমরা 
তেরেসা কিন্তু আইলাইনার পড়ে না 
তেরেসা বাবা এবং অন্য পুরুষদের থেকে সাবধানে থাকে 
এসো জোয়ানা, হাত ধরো 
আমরাও আমাদের জীবনের পুরুষদের এবং একে অপরের থেকে সাবধানে থাকা শিখে নিই।