বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই, ২০১৫

নীল সাদা, সাদা নীল ~ অমিতাভ প্রামাণিক


ধীরে ধীরে অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছি বেশ।
দু:খ হয়, জহরলাল জেনে যেতে পারলেন না
তার একটা জুড়ুয়া ভাই ছিল,
কুম্ভমেলায় নয়, সাঁওতাল বিদ্রোহে সে
হারিয়ে গেছে ভীড়ে।


তার বাড়ির কেউ সরকারি অনুদান নিতে আসে না।
মালা চড়াতে তাই ডাক পড়ে বীর চামুন্ডার।
সে বেচারি নির্দোষ, হুল ফোটানোয়
সে ছিল না মোটেই, কিন্তু তাতে কী!

মরিয়া কাউকে প্রমাণ করিতে হয়, সে মরে নাই।
গুরুদেব লিখেছিল, আহা, বেঁচে ওঠো গুরুদেব।
এখনো সন্ধ্যে হলে এ বঙ্গের আনাচে কানাচে
অনশনে লেগে যায় ভিখারিরা।
তারা মুসলিম নয়, মিছিলে যায় না তারা,
বেলেঘাটা কখনো দেখেনি।
শুধুই গান্ধীজীকে ফলের রস খাওয়ালে তুমি?

নরকের কত কীট বেড়ে গেছে, একত্রে কীটস।
শালপ্রাংশু গুঁড়ির মত বপু নিয়ে, গুরুদেব, কবিগুরি হয়ে
এদের আসন দাও। তোমারই তো ফ্রেন্ড।
শেক্সপীয়রকে ডাকো, আমেরিকা চলে যেতে পারো,
ওখানে অনেক কিছু আজকাল বৈধ হয়ে গেছে।

রামরাজ্য এসে গেছে। রামমোহনের পোয়াবারো।
সতীদাহ বিল পাশ করে নিয়ে বিধানসভায়
বাংলাদেশ হয়ে সোজা চলে গেল প্রতিবেশী পাকিস্তানে।
বেঙ্গল প্যাকেজ পেলে আরো কিছু লুটেপুটে নিত।

এসব আর্ষবাক্যে অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছি।
হচ্ছি ত্রিশূলে।
নীল সাদা, সাদা নীল, চটিপায় গুটিগুটি যাই।