বৃহস্পতিবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৪

চুমুৎকার ~ আশুতোষ ভট্টাচার্য্য

কেউ গালে চুমু খায়, কেউ খায় বক্ষে
কেউ বলে কি ফ্যাসাদ,ক্ষমা কর রক্ষে;
কেউ বুঝি চুমু খায় ভালোবেসে ওষ্ঠে
দূরদেশে চুমু নাকি যায় বুকপোস্টে;
কারো চুমু ফ্লাই করে সিনেমার হলেতে,
কেউ ভাবে প্রচেষ্টা বুঝি গেল জলেতে;
হারুদা তো চুমু খায় চিলেকোঠা ছাদে তে,
ধরা পরে কানমলা, শুনি সংবাদে যে;
মুহূর্তে চুমু খায়, কারো চুমু লেনদি,
হাফ চুমু খেতে নাকি শর্বাণী সেন দি;
আরও হাফ রেখে দিত ব্যাঙ্কের ভল্টে,
দিত নাকি ফিয়াসেকে অ্যাড্রেস পালটে;
চুমু খায় বিপ্লবী, বড়বাবু, কেরানী
পেটরোগা, ভুঁড়িওয়ালা, এলোকেশী কি funny!
কেউ কেউ চুমু খায় নিরাপদে গোপনে
মাধুরীকে নাড়ু নাকি কিস করে স্বপনে;
উষ্ণতা ভালো লাগে পেয়ালার চুমুকে
চুমু খেতে গেল কেউ দিঘা,গড়চুমুকে;
কারো মুখে পাইরিয়া, ভয়ানক গন্ধ
রেগুলার দাঁত মাজে? মনে জাগে সন্দ্য;
কেউ ভারী পরিপাটি ব্রাশ করে সকালে
আশা মনে,যদি কেউ কিস করে বিকেলে;
ফুটফুটে মেম বলে 'হরে হরে কিস না'
শ্রী কৃষ্ণ বলে চুমু কালকেই দিস না;
নিষিদ্ধ চুমু বুঝি ধর্মের বিচারে
ছাত্রীকে চুমু খেল ইংলিশ টিচারে;
কেউ কেউ চুমু খায় নির্জনে লিফটে,
নিয়মিত চুমু খায় কেউ তিন শিফটে;
কবিরাও চুমু খায় বসন্তে, শ্রাবণে,
কোন মুখে চুমু খায় বল দেখি রাবনে?
খেলোয়াড় চুমু খায় ম্যাচ জিতে মাটিতে
শান্তির খোঁজে কেউ জয়রামবাটিতে;
গালে যারা চুমু খায় ব্যাঙ আর সর্পে
সবখানে আছে তারা বলে বীরদর্পে;
জ্যাঠা বলে চুম্বন মোটে ভালো কাজ না
জেঠী বলে কাল হবে, একাদশী আজ না?
কেউ কেউ চুমু খায় সশব্দে সজোরে
কলেজের মেয়ে যদি পরে যায় নজরে;
যাবে নাকি বেলেঘাটা মেগা কিস ফেয়ারে?
টালা থেকে সোজা রুট, অটো পাবে শেয়ারে;
চুমু চলে ইতালিতে, লিসবন, ফ্রান্সে
রাশিয়ান চুমু নাকি ইদানীং পানসে!
চুমু থেকে হয় বুঝি এডস কিবা ইবোলা?
বেপাড়ার ছেলে বুঝি বাঁশ দেব আছোলা!
'ঝুমা প্লিজ চুমা দিয়ো' বচ্চনী আর্তি
কি লজ্জা বল দেখি হল লোকে ভর্তি!
বল দেখি কিসমিস কথাটার অর্থ
মাদুলিটা পরে নিয়ো প্রেমে হলে ব্যার্থ;
চাঁদ মামা চুমু দিয়ে দিত ঘুম পাড়িয়ে
শৈশব,মার চুমু গেল সব হারিয়ে।।

----- চরিত্র সব কাল্পনিক ---------------