শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১১

এ এম আর আই ~ উৎসব

আজ আমরি অগ্নিকান্ডের ঘটনার ব্যাপারে একটু খোজখবর নিলাম। অনেক দুঃখ, ক্ষোভ, দোষারোপ, ক্রোধের মধ্যে দিয়ে যা জানতে পারলাম - প্রাথমিক উদ্ধারকার্জ চালিয়েছেন পঞ্চাননতলা বসি আর রেললাইন কলোনির লোকজন। প্রথম যখন আগুন লাগে তখন এই বস্তির লোকজনই ছুটে আসে, গার্ডরা গেট বন্ধ করে দেয়। অনুরোধ করা হয় গেট খুলে দিতে যাতে কিছু লোককে বাচানো যায়। কিন্তু হাসপাতালের যন্ত্রপাতি চুরি করে নেবে ( বস্তির গরীব লোক তো), এই জন্যে ওদের কে ঢুকতে দেয় না হাসপাতাল কতৃপক্ষ। শেষে কতৃপক্ষ পালায়, গার্ডরা পালায়, ডাক্তাররা (মানে আমাদের ট্যাক্সের টাকায় পাশ করা ডাক্তাররা) পালায় - আর এই বস্তির লোকগুলো জোর করে ঢুকে কয়েকজনকে উদ্ধার করে।

মনুষ্যজাতির কলঙ্ক কিছু শিক্ষিত চকচকে শুয়োরের বাচ্চার সাথে এক সারি তে দাঁড়িয়ে আমরা শাইনিং ইন্ডিয়ানরা শপিং মল, রাস্তা, কফি শপের নতুন মেকওভারের কলকাতাবাসী যখন বস্তিবাসীদের দিকে তাকিয়ে নাক সিঁটকোই, বস্তি উচ্ছেদ হলে নোংরা ঝেটানোর সম আনন্দ লাভ করি, তার বিপরীতে দাঁড়িয়ে ওরা। আজ কয়েকটি দগ্ধ মৃতদেহের জ্বলন্ত আভায় শাইনিং কলকাতার মধ্যে বেমানান গাঁজা, পাতা, ডেন্ড্রাইটের ঠেক পঞ্চাননতলার বস্তি, আর তার বস্তিবাসীদের লাল সেলাম!





কেননা তুমি তো ফেটে পড়ছো না রাগে
এখনো তোমার ভন্ডামি ভালো লাগে
ভন্ডামি কিছু আমারও মজ্জাগত
শ্রেনীর সুবাদে আমিও তোমার মত
কেননা তুমি তো ইচ্ছে করেই অন্ধ
চেয়েছ বলেই তোমার দুচোখ বন্ধ
আমিও অন্ধ তোমার মতন সখা
শ্রেনীর সুবাদে তোমারই মতন বোকা
অথবা চালাক সেয়ানে সেয়ানে দুই
তুমি আর আমি এসো পাশাপাশি শুই
সুবিধের খাটে আমাদের খুনসুটি
শ্রেনীর সুবাদে সমঝোতা লুটোপুটি
চুলোয় যাকগে যা আছে চুলোয় যাবার
আমাদের আছে অঢেল খাবারদাবার
কেননা তুমি তো ফেটে পড়ছো না রাগে
এখনো তোমার ভন্ডামি ভালো লাগে
ভন্ডামি কিছু আমারও মজ্জাগত
শ্রেনীর সুবাদে আমিও তোমার মত

~ কবীর সুমন