বুধবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০১০

হয় বামপন্থা নয় মৃত্যু ৩ ~ তৃনমাও কংগ্রেস বলছি

কথাই সব, নির্বাচন উপলক্ষে পার্থ কথা বলেন, কথা বলেন মমতা। বুদ্ধ কথা বলেন, কথা বলেন বিমান। আমরা সরাসরি নাশুনলেও শুনিয়ে দেয় কাগজ টিভি। বুদ্ধদেব এক কথা বলেছিলেন সাম্প্রদায়িক শক্তির মাথা ভেঙে গুডিয়ে দেব। ব্যাস আর যায় কোথায়, আমরা মিডিয়ার ব্যাখ্যায় শুনলাম বুদ্ধ নাকি বাংলার মানুষের মাথা গুড়িয়ে দেবে বলেছেন। কোলকাতা টিভি, বর্তমান, প্রতিদিন আনন্দবাজার বিশেষ করে প্রতিদিন খরাজ মহাশয় টিভিতে নিজের কন্ঠে শুনিয়ে দেয়- মাথা ভেঙে গুড়িয়ে দেব। কি নৃশংস কথা । বললেন বুদ্ধ। আসল কথা শনেছিলেন ৫০০লোক , আমরা শুনিয়েদিলাম ৫লক্ষ লোককে মাথা ভেঙে গুডিয়ে দেব। আরে বুদ্ধের হাতে আজকাল আর ২৪ঘন্টা, আর আমাদের পাশে যা মিডিয়া গুনে শেষ হবেনা। সব মিডিয়া ব্যবসায়ী বুদ্ধের বিরুদ্ধে। খুব ট্রেড ইউনিয়ন করেছিল এই বুদ্ধদেবরা।

বুদ্ধবাবু সেদিন বললেন হয় বামপন্থা নয় মৃত্যু, অর্থাৎ করেঙ্গে ইয়ে মরেঙ্গে, না আমরা শোনালাম বামপন্থা নাকরলেই সিপিএম সবাইকে খুন করবে। বুদ্ধদেব প্যাচে পড়েছেন ভালই।

তৃনমুলের মিডিয়ার এই কাজকে সিপিএম বলছেন নীতিহীন কাজ। ভূল- কারন রাজনীতিতে নৈতিকতা বলে কোন দিন কিছু ছিলনা আজও নেই। এটা হল ক্ষমতার প্রতি প্রেম ,প্রতিপক্ষর সঙ্গে যুদ্ধ যেখানে জেতাটাই সব। মমতা ও তার সাথিরা অর্জুন হতে মাঠে নেমেছেন যুধিষ্টির হতে নয়। ভগবান চিরকাল অর্জুনের পাশেই থাকে।