শুক্রবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১০

মিছিল ~ অনামিকা

মিছিল থেকে মুখ লুকিয়ে , কোথায় গিয়েছিলাম উধাও
বলব না তা। কিন্তু ফিরে কি দেখছি তা যদি শুধাও ...
বজ্রশব্দে মাইন ফেটেছে। উড়ছে বারুদগন্ধ খালি।
ক্ষমতালোভ পুড়িয়ে দিচ্ছে দুঃখিজনের গৃহস্থালি!
যদিও খুব মেঘ করেছে ... রক্তবৃষ্টি আসছে ঝেঁপে ...
দেখছি চেনা সেই মিছিলই হাঁটছে দৃঢ় পদক্ষেপে।


সময় শুধু নিষ্ঠুর নয়, সেই সাথে সে বড়ই রসিক।
হোর্ডিংএ মুখ প্রকাশ পেলে পাঠায় নানা পারিতোষিক।
মগজ বোঝাই অঙ্কে মেশা নানান শেডের অন্ধকারও।
মধ্যমেধার মধ্যবিত্ত কষছে হিসেব, চাইছে আরও।
মৃত্যুপূজার রাক্ষসীকে বলছে না কেউ "দাঁড়াও ... রোসো" !
সব্বাই চুপ ... অবাক কান্ড ...! পরমপ্রিয় শঙ্খ ঘোষও
বলছেন না, "রক্তে কাদায় ব্যক্ত জীবন যায় না রোয়া !"
মিছিল তবু হাঁটছে। কোনই ভয় নেই তার ... নেই পরোয়া!


খুন হয়ে যায়, ঘাটের ... মাঠের ... হাটের পথের সঙ্গীসাথী।
ছিটকে পড়ছে মাথার ঘিলু, ছিন্ন ব্যাগের আনাজপাতি।
তবু মিছিল এগোয়। আকাশ নতুন আলোয় স্লোগান লেখে।
হতক্লান্ত জীবন ... উঠে দাঁড়ায় ভূমির শয্যা থেকে।
মৃত্যুশীতল সন্ত্রাস আজ করুক যতই হুকুমজারি ...
হার না মানার এই মিছিলে, সারা জীবন থাকতে পারি!