রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০০৯

স্থিতাবস্থা ~ অনামিকা মিত্র

আমরা যারা স্থিতাবস্থার পক্ষে,
টের পাইনি কখন যেন নিতান্ত অলক্ষ্যে
একটু একটু মেঘ জমেছে, জমতে জমতে বেশি,
অভিমানের টুকরো আকাশ, ছাইল এলোকেশী।
একটু ভুলে আমার আকাশ আস্তে আস্তে ওর।
স্থিতির মধ্যে আবছা হল স্মৃতির একাত্তর।
আমরা কোথাও যাবার কথা দিয়েও, চলে যাইনি ...
প্রাসাদচুড়োর প্রসাদগুঁড়ো যেটুকু পাই তাই নিই
বছর গুনে লড়াইগুলো পালটে নিলাম সখ্যে,
আমরা যারা স্থিতাবস্থার পক্ষে!


আমরা যারা স্থিতাবস্থার পক্ষে,
প্রাণপনে সেই অলীক স্থিতি আঁকড়ে ধরি বক্ষে।
এইযে স্থিতি রীতি মেনেই লোভের দিশা মাপে
নীতি পিছোয় ভীতিপ্রদ পরিস্থিতির চাপে
জমি মাপার দড়ির পাশে জমতে থাকে পাপ
দক্ষ ঠোঁটে উথলে ওঠে উদ্ধত সংলাপ
কখনও তা আমার এবং কখনও ওর গলায়
মন চায়না, আড়াইটা যুগ আমায় দিয়ে বলায়
মেনে নিয়েছি, মাফিয়াদের দন্ত এবং নখকে
আমরা যারা স্থিতাবস্থার পক্ষে!


আমরা যারা স্থিতাবস্থার পক্ষে ...
সুগ্রীবই আজ দোসর, কারণ রাম করেনি রক্ষে।
মাসকাবারি বেতনজীবি খোঁজেন অতিরিক্ত
অফিস পুলিশ বিচারসভা লোভের লালায় সিক্ত।
ওষ্ঠাগত জীবন জ্বেলে সে যজ্ঞে দিই যোগান
রুটিনমাপা মিছিল ... আমার ভাঙ্গা গলার স্লোগান ...
মেধার জোরে বাঁচাই রোজই, মাথা এবং পিঠকে।


দুইএকখানা নির্বোধ সেই রুটিন থেকে ছিটকে,
অবাক করা কিছু আগুন, যখন জমায় বক্ষে ...
চমকে উঠি ...
আমরা যারা স্থিতাবস্থার পক্ষে!